আমার প্রথম বইমেলা : তানজিনা

11

বাংলাদেশ পজেটিভ এবং জেসিআই ঢাকা ওয়েষ্ট এর যৌথ উদ্যোগে এবারের ঢাকা একুশে বইমেলায় অনুষ্ঠিত হয়েছিলো ব্যতিক্রমধর্মী আয়োজন “আমার প্রথম বইমেলা”। দশজন সুবিধাবঞ্চিত মেধাবী শিশুদেরকে প্রথমবার বইমেলা ভ্রমণের অভিজ্ঞতা দিতে বইমেলায় ভ্রমণের পাশাপাশি শিশুদেরকে তাদের পছন্দের কিছু বই কিনে দেয়া হয়। আয়োজনটির সহযোগিতায় ছিলো বাংলা একাডেমি ও টিচ ফর বাংলাদেশ।
অনুষ্ঠান শেষে উপস্থিত শিশুদের কাছে বইমেলা ভ্রমণের অভিজ্ঞতা নিয়ে একটি রচনা লেখতে বলা হয় “আমার প্রথম বইমেলা” শিরোনামে। রচনা প্রতিযোগিতায় জয়ী হয় বাংলাদেশ মহিলা সমিতি প্রাথমিক বিদ্যালয় এর পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী তানজিনা আক্তার সাথী। পাঠকদের সুবিধার্থে সেই রচনাটি হুবহু তুলে ধরা হলো।
“আমার প্রথম বইমেলা, আমি এই প্রথম বইমেলাতে এসেছি। প্রতি বছর ফেব্রূয়ারি মাসের ১ তারিখ থেকে ২৮ তারিখ পর্যন্ত থাকে। বই মেলা নিয়ে আমি অনেক গর্ব করি। যারা ছোটদের জন্য বইমেলাটি (শিশু চত্বর) আয়োজন করেছে তাকে আমি অনেক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমি চাই পৃথিবীর সব দেশে একইভাবে বইমেলা আয়োজন হোক নিজ ভাষা সাহিত্য বিকাশের জন্য। বইমেলা শব্দটি শুনলেই মনে পড়ে নানা রকম বইয়ের কথা। যেমনঃ জ্ঞান-বিজ্ঞান, ইতিহাস, রুপ কথার গল্প ইত্যাদি।
এতদিন আমি দেখেছি পৌষ মেলা, মহরমের মেলা, বৈশাখী মেলা ইত্যাদি। এবারে দেখলাম বইমেলা। এই বই মেলায় এসে আমি আনন্দিত এবং অনেক খুশি। আমি বিজ্ঞানের বই বেশী পড়ি। কারণ, আমি প্রোজেক্ট তৈরি করতে পছন্দ করি। বিজ্ঞানের বই পড়ে আমি পানির ফিল্টার তৈরি করেছি। আমি চাই পৃথিবীতে আমার ছোট সবাইকে একবার হলেও এই বই মেলায় আনতে।