আবারও সোলসের সঙ্গে গাইলেন নকীব খান

11

১৯৮৫ সালে সোলস ছেড়ে রেনেসাঁ গঠন করেন নকীব খান। এরপর ব্যান্ড নিয়ে ব্যস্ত হয়ে যান এই সংগীততারকা। আলাদা হলেও প্রায় পাশাপাশি চলেছে দুটি ব্যান্ড। তবে এবার পুরনো ব্যান্ড সোলসের সঙ্গে একই মঞ্চে গাইলেন নকীব খান। গ্লোবাল পেমেন্ট ও প্রযুক্তি কোম্পানি মাস্টারকার্ড আয়োজিত ‘মাস্টারকার্ড পেমেন্ট সামিট ২০১৯’ অনুষ্ঠানে একসঙ্গে গান পরিবেশন করেন নকীব খান, নাসিম আলী খান ও পার্থ বড়ুয়া। শুরুতে যেন ‘যতীন স্যারের ক্লাসে,’ ফিরে গিয়েছিল হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে হলভর্তি দর্শক শ্রোতা। সেই পুরনো স্কুলে ফিরে যাওয়া সোলসের নাসিম আলী খানের গানের সঙ্গে। গত ১৯ নভেম্বর রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে প্রথমেই মঞ্চে হাজির হয় ব্যান্ড সোলস। কিছুক্ষণের মধ্যেই তাদের সঙ্গে যোগ দেয় জনপ্রিয় দল রেনেসাঁ। এরপর পুরোটা সময় নকীব খান, পার্থ বড়ুয়া ও নাসিম আলী খানের একের পর এক পরিবেশনায় বুঁদ হয়েছিলেন উপস্থিত দর্শক-শ্রোতারা। মন শুধু মন ছুঁয়েছে, মুখরিত জীবন, বৃষ্টি দেখে, দেখা হবে বন্ধু, ভালো লাগে জোছনা রাতে, ও নদীরে তুই যাস কোথায় রে, হৃদয় কাদামাটির মানুষের মতো নিজেদের জনপ্রিয় গানগুলোর পাশাপাশি অন্যান্য ব্যান্ডের পরিচিত অনেক গানও পরিবেশন করেন তারা।
দীর্ঘ সময় পর সোলসের সঙ্গে একই মঞ্চে গান গাওয়ার এমন সুযোগ তৈরি করাতে আয়োজকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন রেনেসাঁ’র নকীব খান। বলেন, ‘এমন সুন্দর আয়োজন হলে আগামীতেও একসঙ্গে আবারও গান করতে চাই।’ এর আগে একই মঞ্চে এ দুটি দল গাইলেও একই লাইনআপে এভাবে দুই ব্যান্ডের গেয়ে যাওয়াটা বেশ ব্যতিক্রমীই ছিল। অনুষ্ঠানে দেশের ব্যান্ড-সংগীতের স্বর্ণযুগ নব্বই দশকের গানগুলো যেন ফিরিয়ে নিয়ে যায় শহরের অলিগলি আর মফস্বলের বাজারে এক তারুণ্যদীপ্ত উদ্দীপনায়। ব্যান্ড শিল্পীদের সঙ্গে গান গেয়ে ওঠেন শ্রোতা-দর্শকরাও।