আদর কাড়ে

সনজিত দে

14

ছোট্ট ছিলাম আদর কাড়ি
স্বপ্নপুরি একটি বাড়ি
সেই বাড়িরই আমি যেন
সাত রাজার এক ধন
সবাই আমায় কোলে কোলে
রাখতো সারাক্ষণ ।

এতে আমি দারুণ খুশি
মনের ভেতর আদর পুষি
কিন্তু যখন একটু হলাম
আগের চেয়ে বড়
আস্তে-ধীরে কমলে আদর
ভাবি, কেমনতরো!

আদর আমার ভাগ হয়ে যায়
সেগুলো সব রতনই পায়
রতনটা না বেহায়া খুব
সবার আদর কাড়ে
কখনো মা’র কোলে ওঠে
কখনো বা ঘাড়ে ।
আমার কেবল পড়া পড়া
বাংলা অংক নামতা ছড়া
পড়তে পড়তে সময় ফুরোয়
খেলার সময় কই?
রতনটা না দিব্যি খেলে
আনন্দে হইচই।

ভাল্লাগে না আমার তাতে
দাঁড়িয়ে থাকি বারান্দাতে
ছোটো হয়ে দাপট দেখায়
সব সে ওড়ায় ফুঁতে
নেই কোনো তার লেখাপড়া
আমি পড়ি টু-তে।