অল্প দিনে বিপুল সম্পত্তি টাইগারের

15

জেনারেশন ওয়াইয়ের কাছে দারুণ পছন্দ বলিউড অভিনেতা টাইগার শ্রফকে। তার বডি ফিটনেস, অ্যাকশন স্কিল এবং দুর্দান্ত নাচে মুগ্ধ অসংখ্য ভক্ত। টাইগারের নাচ দেখে অনেকে তাকে বলিউডের ‘গ্রিক গড’ খ্যাত অভিনেতা ঋত্বিক রোশনের সঙ্গে তুলনা করেন। টাইগার নিজেও ঋত্বিককে তার আইডল মানেন। ফিল্মফেয়ারের একটি অনুষ্ঠানে ঋত্বিকের উপস্থিতিতে সে কথা প্রকাশও করেছিলেন।
চার বছর আগে অর্থাৎ ২০১৪ সালে ‘হিরোপান্তি’ ছবি দিয়ে বলিউডে অভিষেক হয়েছিল প্রভাবশালী অভিনেতা জ্যাকি শ্রফের

ছেলে টাইগার শ্রফের। প্রথম ছবিতেই বহু প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছিলেন এই নায়ক। সে ছবিতে তার অভিনয়, অ্যাকশন এবং নাচ মুগ্ধ করেছিল সকলকে। যার কারণে তারকা বনে যেতে খুব বেশি সময় লাগেনি টাইগারের। অল্প সময়ে হয়ে গেছেন কোটিপতিও।
বলিউড অভিনেতাদের আর যাই হোক, টাকার কোনো অভাব হয় না। একবার ছবি হিট করতে পারলেই কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি চলে আসে ঝুলিতে। তেমনটা ঘটেছে টাইগার শ্রফের বেলায়ও। এ পর্যন্ত তার অভিনীত ছবির সংখ্যা মাত্র ছয়টি। কিন্তু তাতেই বিপুল সম্পত্তির মালিক হয়ে গেছেন ইন্ডাস্ট্রির এই নয়া সেনসেশন। হবেন না কেন? ক্যারিয়ারের ছয়টি ছবির সবগুলোই যে সুপারহিট।
ভারতীয় নিউজ চ্যানেল টাইমস নাও-এর খবর অনুযায়ী, টাইগারের বর্তমান সম্পত্তির পরিমাণ ৫৩ কোটি টাকা। এর মধ্যে রয়েছে এস এস জ্যাগুয়ার ১০০ মডেলের একটি গাড়ি। যার মূল্য সাড়ে চার কোটি টাকা। তার একটি বিলাসবহুল ফ্ল্যাট রয়েছে বান্দ্রায়। সেটির দাম ২২ কোটি টাকারও বেশি। এছাড়া রয়েছে নগদ টাকা। নায়কের বার্ষিক আয় ছয় কোটি টাকার কাছাকাছি।
টাইগারের বাবা জ্যাকি শ্রফও এক সময় বলিউডের নামকরা অভিনেতাদের একজন ছিলেন। বর্তমানে তাকে খুব একটা দেখা যায় না পর্দায়। তবে অন্যান্য স্টার কিডদের মতো খ্যাতিমান বাবার হাত ধরে অভিনয় জগতে আসেননি টাইগার। অডিশনের মাধ্যমে নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েই ইন্ডাস্ট্রিতে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। একটা সাক্ষাৎকারে এ কথা টাইগারই জানিয়েছিলেন।