অলোককে দেখামাত্রই গ্রেপ্তারের নির্দেশ

26

গত কয়েক মাসে বলিউডের এক ডজনেরও বেশি প্রভাবশালী তারকার নামে যৌন হেনস্তা ও ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। তাদের মধ্যে রয়েছে অমিতাভ বচ্চন, নানা পাটেকর, সুভাষ ঘাই, অলোক নাথ, অভিজিত ভট্টাচার্য, কৈলাশ খের, বিকাশ বহেল, সাজিদ খানসহ আরও কয়েকটি নাম। তবে সবচেয়ে বেশি বেকায়দায় পড়ে গেছেন প্রবীণ অভিনেতা অলোক নাথ। ধর্ষণের অভিযোগ মাথায় নিয়ে বর্তমানে বাড়ি থেকে ‘পলাতক’ তিনি। দুই দফায় তার বাড়ি গিয়ে তাকে খুঁজে পায়নি মুম্বাই পুলিশ। তার বিরুদ্ধে জারি করা সমনও গ্রহণ করেনি পরিবারের কেউ। যার কারণে তাকে দেখামাত্রই গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছে মুম্বাইয়ের ওসিওয়াড়া থানা পুলিশ। অভিনেতা অলোক নাথের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন লেখিকা ও প্রযোজক বিনতা নন্দা। তার অভিযোগ, নব্বইয়ের দশকে ‘তারা’ নামের একটি টেলিভিশনের সিরিয়ালে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন অলোক। সেই সিরিয়ালের লেখিকা ও প্রযোজক ছিলেন বিনতা। সে সময় নাটক ও সিনেমায় অলোক ‘সংস্কারি’ চরিত্রে অভিনয় করতেন। এ জন্য তার পেছনের চরিত্র কেউ দেখতো না। সেই সুযোগে তিনি বিনতাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছিলেন। এত বছর পর সেই অভিযোগ নিয়ে গত ১৭ অক্টোবর মুম্বাইয়ের ওসিওয়াড়া থানায় যান বিনতা। এরপর গত ২১ নভেম্বর ভারতীয় দন্ডবিধির ৩৭৬ ধারায় অলোক নাথের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা হয়।
কিন্তু তাকে খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ। পুলিশের ধারণা, গ্রেপ্তার এড়াতে তিনি পালিয়ে গেছেন। তবে অলোক নাথের আইনজীবী বলেছেন, অভিনেতা পলাতক নন। কাজের জন্য তিনি বাইরে আছেন। খুব শিগগিরই ফিরে আসবেন। ফিরে এসে পুলিশকে তিনি অবশ্যই তদন্ত কাজে সাহায্য করবেন। কিন্তু এই কথা মানতে নারাজ মুম্বাই পুলিশ। তারা সাফ জানিয়ে দিয়েছে, অলোক ফিরে না আসলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এর আগে একই অভিযোগে গত ১৪ নভেম্বর অলোক নাথের সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করে বলিউডের সিনে অ্যান্ড টিভি আর্টিস্ট অ্যাসোসিয়েশন (ঈওঘঞঅঅ)। এই সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়তাকে। লেখিকা বিনতা নন্দার অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাকে এবং অলোককে এদিন সালিশি বৈঠকে ডেকেছিল ঈওঘঞঅঅ। কিন্তু সেখানে বিনতা উপস্থিত হলেও দেখা মেলেনি অলোকের।